Text size A A A
Color C C C C
পাতা

অফিস সম্পর্কিত

দেশে প্রচলিত শুল্ক সমুদ্র আইন, ১৮৭৮ এবং স্থল শুল্ক আইন, ১৯২৪ (বাতিল), একত্রীকরণ ও সংশোধন করে ১৯৬৯ সনের ০৮ই মার্চ দি কাস্টমস এ্যাক্ট, ১৯৬৯ প্রণীত হয় যা প্রজ্ঞাপন এসআরও নং-২৬৭(১)৬৯, তারিখ-৩১.১২.১৯৬৯ এর আদেশবলে ১৯৭০ সনের ১লা জানুয়ারী হতে বলবৎ করা হয়। তৎসময় হতে বিভিন্ন কাস্টম হাউস/ (কাস্টমস ও এক্সাইজ কালেক্টর পরবর্তীতে কাস্টমস, এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেট) হতে শতভাগ রপ্তানিমুখী, হোম কনজাম্পশন ও ডিপ্লোমেটিক বন্ড প্রতিষ্ঠান কর্তৃক শুল্কমুক্তভাবে পণ্য আমদানির জন্য প্রতিষ্ঠানসমুহের আবেদনের প্রেক্ষিতে বন্ডেড ওয়্যার হাউস লাইসেন্স প্রদান ও বন্ডের আওতায় আমদানি রপ্তানি কার্যক্রমে সার্বিক সেবা প্রদানসহ প্রযোজ্যক্ষেত্রে শুল্ক-কর আদায় করা হচ্ছে। সরকার বন্ড লাইসেন্সধারী শিল্প প্রতিষ্ঠানসমূহকে অধিকতর সেবা প্রদানের লক্ষ্যে নভেম্বর/২০০০ সালে পৃথক কাস্টমস বন্ড কমিশনারেট, ঢাকা গঠন করে। পরবর্তীতে ঢাকাকে প্রধান অফিস করে ২৫.০৩.২০০১ তারিখে কাস্টমস বন্ড কমিশনারেট, আঞ্চলিক কার্যালয়, চট্টগ্রামের কার্যক্রম শুরু হয়। দেশের বৃহত্তম শিল্প নগরী চট্টগ্রাম-এর ব্যবসায়ী সম্প্রদায়ের দীর্ঘদিনের প্রয়োজনের তাগিদে ০২.১১.২০১১ তারিখে বন্ড কমিশনারেট, আঞ্চলিক কার্যালয়, চট্টগ্রাম-কে আপগ্রেড করে পূর্ণাঙ্গ কমিশনারেটে রূপান্তর করতঃ একজন কমিশনারের নেতৃত্বে কাস্টমস বন্ড কমিশনারেট, চট্টগ্রাম-এর কার্যাবলী পরিচালিত হচ্ছে।  

 

কাস্টমস বন্ড কমিশনারেট, চট্টগ্রাম এর অধিক্ষেত্র

 

          অর্থ মন্ত্রণালয়ের অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের পত্র নং- ০৮.০৩৩.০২১.০১.০০.০৩৫.২০০৯(অংশ-১) ৫৪০, তারিখঃ ২৫/০৮/২০১১খ্রিস্টাব্দ এর মাধ্যমে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের অধীন শুল্ক, আবগারী ও মূল্য সংযোজন কর (মূসক) অনুবিভাগের সংস্কার, পুর্নগঠন ও সম্প্রসারণের আদেশ জারী হয়। তদানুসারে কাস্টমস বন্ড কমিশনারেট, চট্টগ্রাম গঠিত হয়। জাতীয় রাজস্ব বোর্ড এর আদেশে চট্টগ্রাম প্রশাসনিক বিভাগ এলাকায় অবস্থিত বন্ডেড ওয়্যার হাউস সমূহ ও ইপিজেডসমূহ এ বন্ড কমিশনারেটের অধিক্ষেত্র।

 

(ক)বন্ডেড ওয়্যারহাউস সমূহঃ-

- গার্মেন্টস বন্ড

- এক্সেসরীজ বন্ড

- ডিপ্লোমেটিক বন্ড

- হোম কনজাম্পশন বন্ড

(খ) ইপিজেডস্থ বন্ডেড ওয়্যারহাউস সমূহঃ-

- চট্টগ্রাম ইপিজেড

- কোরিয়ান ইপিজেড

- কর্ণফুলী ইপিজেড

- কুমিল্লা ইপিজেড

ছবি